ইউএনও’র সামনে দুই সাংবাদিককে লাঠিপেটা করল পুলিশ!

0

Ȳ

নিজস্ব প্রতিবেদক (মুন্সিগঞ্জ নিউজ  24.net) # করোনাভাইরাস সংক্রমণ এড়াতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) প্রচার-প্রচারণার ছবি তুলতে গিয়ে পুলিশের লাঠিপেটার শিকার হয়েছেন বরিশালের দুই ফটো সাংবাদিক। আহতদের অভিযোগ- কোনো কারণ ছাড়াই তাদের পেটানো হয়। গত শুক্রবার সন্ধ্যার পর বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় ঘটনাটি ঘটলেও গতকাল শনিবার রাতে তা প্রকাশ করেন ভুক্তভোগীরা।

পুলিশের নির্যাতনের শিকার দুই ফটোসাংবাদিক হলেন- বরিশালের আঞ্চলিক দৈনিক দেশ জনপদ পত্রিকার শাফিন আহমেদ রাতুল ও দৈনিক দখিনের মুখ পত্রিকার নাসির উদ্দিন।

এদিকে সাংবাদিক নির্যাতনের ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করে অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যদের খুঁজে বের করে শাস্তির আওতায় আনার কথা জানিয়েছেন বরিশাল মহানগর পুলিশ কমিশনার।

আহত ফটোসাংবাদিক শাফিন আহমেদ রাতুল জানান, বরিশাল সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মোশারেফ হোসেন গত শুক্রবার সন্ধ্যায় জনসচেতনতামূলক প্রচারণা চালাতে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় যান। এ সময় তার বহরে পুলিশের দুটি পিকআপ ছিল। বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় পৌঁছানোর পর মাস্ক পরিহিত একজন পুলিশ সদস্য তাদের পরিচয় জানতে চান। এ সময় তারা নিজেদের ফটো সাংবাদিক হিসেবে পরিচয় দেন। এরপরও ওই পুলিশ সদস্য তাদের বেদম লাঠিপেটা করেন। বিষয়টি প্রথমে তারা লোকলজ্জার কারণে চেপে যান। তবে পরে রাগে-ক্ষোভে তা সহকর্মীদের জানান।

এদিকে বিষয়টি বরিশালের গণমাধ্যম কর্মীদের মাঝে জানাজানি হলে তারা ক্ষোভ প্রকাশ করেন। বরিশাল প্রেসক্লাবের সভাপতি এস এম জাকির হোসেন বলেন, ‘কর্মরত অবস্থায় দুই সাংবাদিককে নির্যাতনের ঘটনা অমানবিক। ন্যাক্কারজনক এই ঘটনার সাথে জড়িতদের শাস্তির দাবি করছি।’

বিষয়টি নিয়ে বরিশাল সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মোশারেফ হোসেন বলেন, ‘আমার সাথে পুলিশ ছিল। তবে আমি কাউকে পেটাতে নির্দেশ দেইনি। কোন পুলিশ সদস্য সাংবাদিক পিটিয়েছে তাও আমি দেখিনি। তারপরও যদি সাংবাদিক নির্যাতনের ঘটনা ঘটে, তাহলে আমি দুঃখ প্রকাশ করছি।’

বরিশালের জেলা প্রশাসক এস এম অজিয়র রহমান বলেন, ‘বিষয়টি আমি শনিবার রাতে জেনেছি।’ আহত দুই সাংবাদিকের দায়িত্ব নিয়ে তিনি বলেন, ‘আমার প্রতি আস্থা রাখুন, ঘটনার সাথে জড়িত অভিযুক্তদের শাস্তির আওতায় আনা হবে।’

বরিশাল মহানগর পুলিশ কমিশনার মো. শাহাবুদ্দিন খান বলেন, ‘বর্তমান সঙ্কটময় পরিস্থিতিতে শুধু সাংবাদিক নয়, সাধারণ জনগণের সাথেও দুর্ব্যবহার কাম্য নয়। দুই সাংবাদিককে লাঠিপেটার খবর শুনেছি। অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যদের শনাক্ত করে শাস্তির আওতায় আনা হব

Print Friendly, PDF & Email

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.