গজারিয়ায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ— সহযোগী ইউসুফ আটক!!

0

এস এম নাসির উদ্দিন (মুন্সীগঞ্জ নিউজ ২৪ ডট নেট) : মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে দীর্ঘদিন ধরে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠেছে এক সেনা সদস্যের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের পর ধর্ষণে সহযোগিতা করার দায়ে আজ (রবিবার) ইউসুফ(৩৫) নামে একজনকে আটক করেছে গজারিয়া থানা পুলিশ।

আটককৃত ইউসুফ উপজেলার টেংগারচর ইউনিয়নের টেঙ্গারচর গ্রামের সাত্তার আলীর ছেলে।

ধর্ষণের শিকার ওই ছাত্রী(১৬) জানায়, স্থানীয় একটি মাদ্রাসায় পড়াশোনা করে সে। তার বাড়ি টেংগারচর ইউনিয়নের গুচ্ছগ্রাম । টেঙ্গারচর গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে সেনা সদস্য ইমরান (২২) দীর্ঘ দুই বছর ধরে তার প্রেমের সম্পর্ক ছিল। বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ইমরান অনেকবার তার সাথে শারীরিক সম্পর্ক করে। এদিকে বিষয়টি জানাজানি হওয়ায় সম্প্রতিকালে সে ইমরানকে বিয়ে করতে বলে তবে ইমরান তাতে অস্বীকৃতি জানায়।

এঘটনায় বাধ্য হয়ে গত ১জুলাই ভুক্তভোগী ওই ছাত্রীর মা বাদী হয়ে সেনা সদস্য ইমরানকে প্রধান আসামি ও তার তিন সহযোগী ইউসুফ, জামাল মোল্লা, রাসেলকে আসামি করে গজারিয়া থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

মামলাটির তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই মাইনুদ্দিন জানান, মামলা দায়েরের পর অভিযুক্ত আসামিদের ধরতে বিভিন্ন জায়গায় অভিযান পরিচালনা করেন তারা তবে মামলা দায়েরের খবর শুনে অভিযুক্তরা গাঁ ঢাকা দেয়। অবশেষে আজ (১১ অক্টোবর) সন্ধ্যায় উপজেলার ভবেরচর ইউনিয়নের ভিটিকান্দি গ্রাম থেকে ধর্ষণের সহযোগিতাকারী ইউসুফকে আটক করেন তারা।

বিষয়টি সম্পর্কে জানতে গজারিয়া থানার ওসি (তদন্ত) মামুন আল রশিদের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, ধর্ষণের সহযোগিতা করার দায়ে একজনকে আটক করা হয়েছে। ঘটনায় মূল অভিযুক্ত ইমরানসহ বাকি আসামিদের আটকে তাদের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.