ব্যস্ত সময় পাড় করছেন মুন্সীগঞ্জের কামাড় শিল্পীরা।। 

0

 

 তোফাজ্জল হোসেন শিহাব ( মুন্সীগঞ্জ নিউজ ২৪ ডট নেট) পবিত্র কোরবানীর ঈদকে সামনে রেখে ব্যস্ত সময় পাড় করছেন কামাড়পাড়ার কারিগর সহ শিল্পীরা। সদর উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলের সব কয়টি কামারপাড়ায় চলছে দা, বটি,ছুরি,চাপাতি তৈরীর হিড়িক। কোরবানীর পশু জবাই, মাংশ কাটা, চামড়া ছাড়ানে ইত্যাদি কাজে ব্যবহৃত হয়ে থাকে মুলত এসব যন্ত্রপাতির। শহরের বেশ কয়েকটি কামার পাড়ায় এখন দিন রাত শুধু টুং – টাং শব্দে মুখর। ধারালো এসব পন্য তৈরীতে ব্যস্ত এখন কামাড় শিল্পীরা। মহামারি করোনা ভাইরাস উপেক্ষা করে ও যেন থেমে নেই তারা। নিজেরাই লোহা পিটিয়ে দা,বটি,ছুড়ি,চাপাতি তৈরীতে বেশ ব্যস্ত সময় পাড় করছেন। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, শহরের কাচা বাজার,  বাসস্টান্ড,  লঞ্চঘাট,  বিসিক, মুক্তারপুর বাজারের কামাড় শিল্পীরা বেশ ব্যস্ত সময় পাড় করছেন এসব পন্য তৈরীতে। নিজেদের এসব পন্য উপজেলার বিভিণ্ন হাট বাজারে তারা নিজেরাই সরবরাহ করে থাকেন। কোরবানীর ঈদ যত ঘনিয়ে আসছে ততই যেন তাদের কাজের ব্যস্ততা বেড়েই চলছে। কামাড়পাড়ার কয়েকজন কারিগড়ের সাথে কথা বললে তারা জানান, বছরের অন্যান্য সময় গুলোতে তেমন ব্যস্ততা থাকে না। শুধু কোরবানীর ঈদ বা ঈদ- উল আযহার এ সময়টাতে কজের চাপ অনেকাংশে বেড়ে যায়।  সেই সাথে রোজগার ও। পরিবার পরিজন নিয়ে বছরের অন্যান্য সময় গুলো তেমন ভাল না কাটলে ও কোরবানীর ঈদ মৌসুমে তাদের মুখে হাসি ফোটে। তবে দেশে কোভিড-১৯ এর কারনে কোরবানীর পশুর জবাইয়ের পরিমান হ্রাস পাবে বলে আশংকা করছেন তারা। সেই হিসেবে কাজের চাপ খুব বেশি একটা নয় বলে মন্তব্য করেছেন  বেশ কিছু কামাড় শিল্পীরা ও। কোনরূপ সরকারি পৃষ্ঠপোষকতা ছাড়াই পৈত্রিক পেশা হিসেবে কামাড় শিল্পীরা তাদের কাজ করে যাচ্ছেন নিরলসভাবে। 

Print Friendly, PDF & Email

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.