মুন্সীগঞ্জ জেলা যুবলীগের ( ভার:) সভাপতি শাহজাহান খান জেল হাজতে !!

৮ সহযোগী ২ দিনের রিমান্ডে

0

 

নিজস্ব প্রতিবেদক (মুন্সীগঞ্জ  নিউজ ২৪ ডট নেট) : মুন্সীগঞ্জ জেলা যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি গজারিয়া উপজেলার টেঙ্গার চর ইউনিয়নের সাবেক ৩ বারের চেয়ারম্যান বাংলাদেশ কেমিস্ট এন্ড ড্রাগস এসোসিয়েশন নারায়নগঞ্জের সভাপতি শাহজাহান খান গত  হাইকোট থেকে ৬ সপ্তাহের জামিনে এসে মঙ্গলবার মুন্সীগঞ্জ  চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্র্যাট  বেগম রোকেয়া রহমানের কোটে জামিনের আবেদন করিলে আদালত  জামিনের আবেদন না  মঞ্জর করে  জেল হাজতে প্রেরন করেন। শাহজাহান খান সহ  বর্তমানে ২১ জন উক্ত মামলায় জেল হাজতে আছে।  এর পূর্বে  শাহজাহান খানের ২০ সহযোগী আদালতে আত্মসমর্পন করলে তাদেরকে জেল হাজতে পাঠায় আদালত।পরবর্তীতে ২০ আসামীর প্রত্যেককে ৫ দিনের রিমান্ড চেয়ে গজারিযা থানা পুলিশ আদালতে আবেদন করলে আজ মঙ্গলবার ১ ডিসেম্বর শুনানী শেষে জামাল খান, আল আমিন খান ,মাসুম খান, সাইদুর খান, সোলাইমান খান, আরমান খান, ফজলুল খান কে  ২ দিন করে রিমান্ডের আদেশ দেন আদালত  ।

৯ সেপ্টেম্বর  ২৪ জনের নাম উল্লেখ্য  করে আরো ১০/১২ জন অজ্ঞাত করে ১৪৩/৩৪১/৩২৩/৩২৪/৩২৬/৩০৭//৩৮৫/৩৮৬/৫০৬/১১৪ পেনাল  কোড ধারায়   তানিয়া বাদী হয়ে গজারিয়ার থানায় মামলা  করেন।

গজারিযা থানার মামলা  ও এলাকাবাসী সূত্রে   জানা যায় মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ায় আধিপত্য বিস্তার,বালু কাটা মহালকে  কেন্দ্র করে টেংগারচর ইউনিয়ন বৈদ্যারগাও গ্রামে বুধবার ৯ সেপ্টেম্বর  দুপুরে আওয়ামী লীগ নেতা জেলা যুবলীগ সভাপতি শাজাহান খান গং এবং আজীম উদ্দিন গং দুই পক্ষের সমর্থকদের মাঝে শাজাহান খান গংদের চাঁদ চাওয়াকে  কেন্দ্র করে যুবক রোবেল (২৭) এর হাত কেটে ফেলে।  তার বিরুদ্বে এলাকাবাসী ঝাড়ুমিছিল,বিক্ষোভ মিছিল করেছে যা প্রিন্ট মিডিয়া ও ইলেকট্রিক মিডিয়ায় প্রকাশিত হয়েছে।

আহত রোবেল বৈদ্যারগাও গ্রামের মৃত নাছির উদ্দিনের ছেলে । রোবেল কে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তির পর আশংকা জনক অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে  আহত রোবেলের ভাই সেলিম জানান জেলা যুবলীগ সভাপতি শাজাহান খানের নির্দেশনায় বুধবার দুপুরে মিরেরগাও গ্রাম সংলগ্ন বালু মহল থেকে বাড়ি আসার সময় রাকিব ও রোবেল কে জেলা যুবলীগ সভাপতি শাজাহান খান গংদের সন্ত্রাসী চক্র ফজলুল করিম, জামান খান, মাসুম, আল আমিন, তানজিল,মাহিন খান সহ ১০ থেকে ১৫ জনের একটি গ্রূপ হামলা চালিয়েছে। হামলাকারিরা আমার ভাই রোবেলের হাত কেটে আনন্দ মিছিল করেছে। মিছিলে ছোলায়মান মোবাইল করে শাজাহান খান কে নিশ্চিত করে যে রোবেলের হাত কেটে নিয়ে এসেছি । রোবেল মৃত্যুর সাথে লড়াই করছে। আহত কবির চিকিৎসাধীন হাসপাতালে আছে। হামলাকারীরাদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবীতে ঝারু মিছিল করেছে ভুক্তভোগী পরিবার ও এলাকারবাসী। পুলিশ  অাজ পর্য ন্ত অস্ত্র এবং  রোবেলের হাত উদ্বার করতে পারেনি।

এদিকে রুবেলের বাম হাত থেকে কব্জি বিচ্ছিন্ন খবর মুহূর্তের মধ্যে এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে এলাকাবাসী সাবেক ইউ‘পি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শাহজাহান খানের বিরুদ্ধে ঝাড়ু মিছিল বের করে।

 

 

Print Friendly, PDF & Email

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.