শিরোনাম

হোসেন্দীর ইউপি উপ-নির্বাচনে প্রচারনার শেষ দিনে দফায় দফায় সংঘর্ষ, ৩ গুলিবিদ্ধ ও ১ টেঁটা বিদ্ধ, আহত ২১; গাড়ী ও বসতঘর ভাঙ্ঘচুর

মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ায় হোসেন্দী উপ-নির্বাচন বাকি মাত্র ২ দিন

0

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি:  মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ায় হোসেন্দী ইউপির উপ-নির্বাচনে প্রচারণার শেষ দিনে দিনভর দফায় দফায় সংঘষের্র ৩জন গুলিবিদ্ধসহ আহত হয়ছে তিন চেয়ারম্যান প্রার্থীর ২১ সমর্থক। এসময় ৩টি গাড়ী ও ১৬টি বসতঘরে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে।ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী ও আহতদের সাথে কথা বলে জানা যায়, শনিবার সকালে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মমিন আলী তার সমর্থকদের নিয়ে নির্বাচনী সো-ডাউন করার উদ্দেশ্য হোসেন্দী বাজার এলাকায় গেলে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী মনিরুল হক মিঠুর সমর্থকরা মমিন আলী সমর্থকদের উপর হামলা চালায়।  হামলার খবর ছড়িয়ে পড়লে হোসেন্দী বাজার ও ভবানীপুর এলাকায় উভয় পক্ষের সমর্থকদের মধ্যে কয়েক দফা সংঘর্ষ ও ইট-পাটকেল নিক্ষেপের ঘটনায় রোকন(৩২)নামে মনিরুল হক মিঠুর এক সমর্থক টেটাবিদ্ধ ও ৬ জন আহত হয় । টেঁটা বিদ্ধ রোকন জামালদি এলাকার লোয়ার আলীর পুত্র। । এদিকে মনিরুল হক মিঠুর সমর্থকরা পাল্টা হামলা চালালে স্বতন্ত্র প্রার্থী মমিন আলীর ১০ সমর্থক আহত হয়। এসময়  মমিন আলীর ১৬ সমর্থকের বাড়ী ও ১টি মাইক্রোবাস ও ২টি ব্যাটারী চালিত অটোরিক্সা ভাঙচুর করা হয়। আওয়ামীলীগ সমর্থিত প্রার্থী মনিরুল হক মিঠু জানান,  স্বতন্ত্র প্রার্থী মমিন আলীর সমর্থকরা আমার সমর্থকের ধাওয়া দিয়ে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করলে ৬জন আহত হয় ।স্বতন্ত্র প্রার্থী মমিন আলীর লোকজন আমাদের প্রচারনায় বাঁধা দিচ্ছে। সুস্থ্য নিবার্চনের লক্ষে আইন শৃঙ্খলার বাহিনীর হস্তক্ষেপ কামনা করছি।আহতদের গজারিয়া ও সোনারগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে অভিযান শুরু করে গজারিয়ার থানা পু্লশি। সংঘর্ষের ঘটনায় হোসেন্দী বাজার জনশূন্য হয়ে যায়।এদিকে শনিবারে বিকেলে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী মনিরুল হক মিঠুর সমর্থকদের হামলায় আরেক স্বতন্ত্র প্রার্থী হাজী আক্তার হোসেনের ৩ সমর্থক গুলিবিদ্ধ হয়েছে বলে জানা যায় ।গুলিবিদ্ধরা হলেন,  আব্দুর রব (৫৫),রমজান (৩২) ও শাহ জালাল (১৮)। আহতের ঢাকা মেডিক্যাল কলেজে পাঠানো হয়েছে।এ ঘটনায় স্বতন্ত্র  চেয়ারম্যান প্রার্থী হাজী আক্তার হোসেন জানান, তার তিন সমর্থক গুলিবিদ্ধ হয়ছে। নির্বাচনে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতা আরো বাড়ানো প্রয়োজন। আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী মনিরুল হক মিঠুর বলেন স্বতন্ত্র  চেয়ারম্যান প্রার্থী হাজী আক্তার হোসেন অভিযোগ মিথ্যা আমার কোন লোকজন এধরনের ঘটনা ঘটাননি।গজারিয়া থানার ওসি তদন্ত মামুনুর রশিদ জানান, পরিস্থিতি এখন তাদের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে,ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে তবে এ ঘটনায় কাউকে আটক করা যায়নি।

এদিকে গজারিয়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মো: আমিনুর রহমান জানান, গোলাগোলির একটি ঘটেছে বলে শুনেছি তবে কেউ গুলিবিদ্ধ হয়েছে কিনা তা আমার জানা নেই। এদিকে মুন্সীগঞ্জ পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম পিপিএম বার বলেছেন হোসেন্দী ইউপির উপ-নির্বাচন ঘিরে কোন সন্ত্রাসী কার্যকলাপ করতে দেওয়া হবেনা । যদি কেউ এই নির্বাচনে আইনশৃঙ্খলা অবনতি করার চেষ্টা করে সে যে দলেরই হোক তাকে আইনের আওতায় আনা হবে।

Print Friendly, PDF & Email

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.